Breaking News

চট্টগ্রাম-সন্দ্বীপ নৌরুট এবার আসছে ‘এলসিটি কাজল’

সারোয়ার সুমন

চট্টগ্রাম-সন্দ্বীপ নৌরুটে ‘এলসিটি কাজল’ আনছে বিআইডবি্লউটিসি। তবে ‘এমবি বে ক্রুজের’ মতো এ জাহাজটিও বর্ষাকালে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে চলাচলের অনুপযোগী হয়। এটির নেই ফিটনেস সার্টিফিকেটও। নতুন করে মেরামত করে সনদ নিতে হবে এ জাহাজকে। তবে এ জাহাজটি এই রুটে আসলে কম থাকবে ভাড়া। এখন ‘এমভি বে ক্রুজ’ জনপ্রতি ২২০ টাকা ভাড়া নিলেও কাজলে ভাড়া থাকতে পারে ১০০ থেকে ১২০ টাকা। ৩৫০ যাত্রী ধারণক্ষমতার এ জাহাজে এসি ও নন-এসি উভয় সুবিধা থাকবে। যাত্রীদের দাবি, জাহাজটি যাতে যথাযথভাবে মেরামত করেই এই রুটে আনা হয়। জাহাজ থেকে যাত্রী নিরাপদে তীরে নিয়ে আসতে লাইফ সাপোর্ট সরঞ্জামসহ নিশ্চিত করতে হবে নিরাপদ নৌযানও। বে ক্রুজ নামের জাহাজটি এখন যাত্রীদের তীরে নিচ্ছে লাল বোটে করে। এতে করে আবারও ভয়াবহ সেই দুর্ঘটনার শঙ্কায় আছে সন্দ্বীপের চার লাখ মানুষ। প্রসঙ্গত, টেকনাফ-সেন্টমার্টিন গত ২ এপ্রিল ইজারাদার ও কমিশন এজেন্টদের অবহেলায় এক নৌ-দুর্ঘটনায় এই রুটে প্রাণ হারিয়েছে ১৮ জন। এ প্রসঙ্গে বিআইডবি্লউটিসি চট্টগ্রামের ডিজিএম গোপাল মজুমদার বলেন, ‘ আমরা এলসিটি কাজল জাহাজটি মাসিক সোয়া লাখ টাকার বিনিময়ে সঞ্জয় সামের এক ব্যক্তির কাছে ভাড়া দিয়েছি। তারা ভালোভাবে মেরামত করে ফিটসেন সনদ নিয়েই জাহাজটি কুমিরা-গুপ্তছড়া রুটে আনবে। শিগগির এটি বহরে যুক্ত হবে।’ অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘প্রয়োজনীয় লাইফ সাপোর্ট সামগ্রী থাকা নিরাপদ নৌযান দিয়ে যাত্রী ওঠানামার শর্ত যুক্ত করে নতুন বোট কন্ডাক্টর ঠিক করা হয়েছে। আগের বোট কন্ডাক্টর মাহমুদুর রহমান মান্নাকে বাদ দিয়ে এ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ইকরাম উদ্দিন ফরহাদকে।’

জানা গেছে, বোট কন্ডাক্টর হিসেবে ইকরাম উদ্দিন ফরহাদকে দায়িত্ব দিয়ে গত বৃহস্পতিবার চিঠি ইস্যু করেছে বিআইডবি্লউটিসি ডিজিএম (কমার্শিয়াল) শেখ মোহাম্মদ নাসিম। এ চিঠিতে নিরাপদ নৌযান ও নিরাপত্তা সরঞ্জাম রাখার বাধ্যবাধকতা যুক্ত করা হয়। যাত্রী তীরে নিতে এবার কাঠের নৌকার ব্যবস্থা করবেন বলে বিআইডবি্লউটিসিকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ফরহাদ। ‘এলসিটি কাজল’ জাহাজ পরিচালনার সাথে যুক্ত থাকা দৌলতুজ্জামান সুমন বলেন, ‘প্রয়োজনীয় মেরামত কাজ করে ঈদের আগেই জাহাজটি নতুন রুটে চালাতে চাই আমরা। মেরামত কাজ ঠিকভাবে করলে পাওয়া যাবে ফিটনেস সনদও। তাছাড়া জাহাজ থেকে যাত্রী তীরে নিতে লাল বোট ব্যবহার করা হবে না। এ জন্য বিআইডবি্লউটিসি আলাদা শর্ত যুক্ত করে কন্ডাক্টরও নিয়োগ দিয়েছে।’ কক্সবাজার রুটে বর্ষাকালে চলাচলের অনুপযুক্ত জাহাজ কীভাবে কুমিরা-গুপ্তছড়া রুটে নিরাপদ হবে_ জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, ‘সেখানে পর্যটক কম থাকায় এখন দুটির বেশি জাহাজের চলাচলের অনুমতি নেই। তাছাড়া এখন আমরা নতুনভাবে মেরামত কাজ করেই ফিটনেস সার্টিফিকেট নেব।”আমরা সন্দ্বীপবাসী’ সংগঠনের প্রধান সমন্বয়কারী ডাক্তার রফিকুল মাওলা বলেন, ‘যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ না করে জেলা পরিষদের ইজারাদার ভাড়া নির্ধারণ করে যাত্রীদের গলা কাটছে। বিআইডবি্লউটিসিকে প্রথমত কাজল জাহাজের ফিটনেস সনদ নিতে হবে। এরপর আলোচনা করে ভাড়া ঠিক করতে হবে ১০০ টাকার নিচে।’

 প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল ২০১৭
সমকালে প্রকাশিত খবরটি কপি করে হুবুহু পাঠকের জন্য দেওয়া হল।

About tvsandwip

Check Also

সন্দ্বীপে ডাকাতির ঘটনায় ৬ আসামি গ্রেফতার, লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধার

ওমর ফয়সাল, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৪: ২২ পি.এম একমাসের মধ্যে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকায় ৬ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *